আমাদের প্রতিজ্ঞা উদ্ভাবন, জনসেবা, সততা, নিরপেক্ষ ও তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর পৌরসভা গড়েতোলা

হবিগঞ্জ পৌরসভা
Our Mission: Green, Clean and Smart City-Habiganj

পুরাতন খোয়াই নদীর অবৈধ স্থাপনা উদ্ধার, পরিচ্ছন্ন ও নান্দনিক করতে সংসদ সদস্য ও জেলা প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়েছেন হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আতাউর রহমান সেলিম ॥

পুরাতন খোয়াই নদীর অবৈধ স্থাপনা উদ্ধার, পরিচ্ছন্ন ও নান্দনিক করতে সংসদ সদস্য ও জেলা প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়েছেন হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আতাউর রহমান সেলিম ॥


পুরাতন খোয়াই নদীর অবৈধ স্থাপনা উদ্ধার, নদীগর্ভ পরিচ্ছন্ন ও কার্লভাটগুলো সচল করা এবং নদীর সার্বিক পরিবেশ নান্দনিক করতে সংসদ সদস্য ও জেলা প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়েছেন হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আতাউর রহমান সেলিম। শুক্রবার সকালে তিনি পুরাতন খোয়াই নদীর বিভিন্ন অংশ পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী দিলীপ কুমার দত্ত, সহকারী প্রকৌশলী (পানি ও পয়ঃনিস্কশন) মোহাম্মদ আবদুল কদ্দুছ শামীম ও এলাকার বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ। মেয়র উত্তর শ্যামলী, দক্ষিন শ্যামলী, নিউ মুসলিম কোয়ার্টার ও ষ্টাফ কোয়ার্টার এলাকা পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি এলাকাবাসীর সাথে কথা বলেন। যারা অবৈধভাবে নদীর জায়গায় স্থাপনা নির্মাণ করেছেন তাদেরকে তিনি নিজ নিজ দায়িত্বে স্থাপনা সড়িয়ে ফেলতে বলেন। তিনি বলেন,‘পুরাতন খোয়াই নদীতে অনেকেই অবৈধভাবে জায়গা দখল করে আছেন। নদীর প্রশস্ততা কমে কোন কোন জায়গায় সামান্য অংশ অবশিষ্ট রয়েছে। দখল ও দুষনে পানি প্রবাহ প্রায় বন্ধ হয়ে আছে। কার্লভার্টগুলো অনেকটাই অচলপ্রায়। পানি প্রবাহ না থাকায় কচুরীপানা ও আবর্জনায় নদীগর্ভ প্রায় পরিপূর্ন হয়ে রয়েছে। এর ফলে বৃষ্টির সময় পুরাতন খোয়াই পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে জলাবদ্ধতা দেখা দেয়।’ মেয়র আতাউর রহমান সেলিম বলেন,‘শহরের বিভিন্ন পুরাতন খোয়াই নদীর অবৈধ স্থাপনা উদ্ধার, নদীগর্ভ পরিচ্ছন্ন ও কার্লভাটগুলো সচল করা এবং নদীর সার্বিক পরিবেশ নান্দনিক করতে আমি মাননীয় সংসদ সদস্য এডভোকেট মোঃ আবু জাহির ও জেলা প্রশাসক মোছাঃ জিলুফা সুলতানা’র সহযোগিতা কামনা করি।’#